পাতন ও ঊর্ধ্বপাতন

পাতন ও ঊর্ধ্বপাতন

পাতন

পাতন হচ্ছে কোনো তরল মিশ্রণ থেকে উপাদান পদার্থগুলোকে বাষ্পীভবন ও ঘনীভবন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে আলাদা করা। এটা হতে পারে সম্পূর্ণভাবে পৃথক করা (খাঁটি উপাদান পদার্থের কাছাকাছি), অথবা এটা আংশিকভাবে পৃথকও হতে পারে যাতে মিশ্রণের ঐ পদার্থটির ঘনমাত্রা বাড়ে। অর্থাৎ পাতন প্রক্রিয়া হল বাষ্পীভবন ও ঘনীভবন এর প্রক্রিয়ার মিশ্রণ।

                                                    পাতন  =  বাষ্পীভবন + ঘনীভবন।

পাতন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে কোন মিশ্রণের বা দ্রবণের উপাদানকে পৃথক করা যায়। যেমনঃ পানি ও ইথানলের দ্রবণকে পাতন প্রক্রিয়ায় পৃথক করা যায়। এ পদ্ধতিতে দ্রবণের যে উপাদানটির স্ফুটনাংক কম সেই উপাদানটি প্রথমে বাষ্পীভূত হবে। 

ঊর্ধ্বপাতন

যে প্রক্রিয়ায় কোনো পদার্থকে তাপ দিলে কঠিন থেকে তরলে পরিণত না হয়ে সরাসরি গ্যাসীয় অবস্থায় পরিণত হয় এবং ঠাণ্ডা করলে গ্যাসীয় অবস্থা থেকে সরাসরি কঠিনে রূপান্তরিত হয় তাকে ঊর্ধ্বপাতন বলে। নিশাদল,  কর্পূর,  ন্যাপথালিন, কঠিন CO2, আয়োডিন,  অ্যালুমিনিয়াম ক্লোরাইড এই পদার্থগুলোকে তাপ প্রদান করা হলে সেগুলো তরলে পরিণত না হয়ে সরাসরি বাষ্পে পরিণত হয়। এই পদার্থগুলোকে ঊর্ধ্বপাতিত পদার্থ বলা হয়।

শেয়ার:

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

13 + 20 =