Bandwidth

ব্যান্ডউইথ

একটি নির্দিষ্ট সময়ে কোন চ্যানেল দিয়ে যে পরিমাণ ডেটা স্থানান্তরিত হয় তার পরিমাণকে ব্যান্ডউইথ হিসাবে পরিমাপ করা হয়। একে ডেটা ট্রান্সমিশন স্পিড হিসাবেও চিহ্নিত করা হয়ে থাকে। ব্যান্ডউইথের একক বিট পার সেকেন্ডে বা Bit Per Second (BPS)। ব্যান্ডউইথ এর গতিকে ব্যান্ডস্পিড বলা হয়।

ব্যান্ডউইথকে একটি রাস্তার সাথে এবং ডেটা কে রাস্তার চলাচল করা গাড়ির সাথে চিন্তা করা যায়। মিডিয়ার ব্যান্ড উইডথ যত বেশি হবে, ডেটা তত দ্রুত একস্থান থেকে অন্য স্থানে যেতে পারবে। যদি কোনো কম্পিউটার নেটওয়ার্কে বা ডেটা কমিউনিকেশন সিস্টেমে নির্দিষ্ট কোনো ব্যান্ড উইডথ প্রয়োজন হয় তাহলে সে অনুযায়ী মিডিয়া নির্বাচন করতে হবে।

এই ডেটা আদান প্রদানের গতির উপর ভিত্তি করে ব্যান্ডউইথ কে ৩ ভাগে ভাগ করা হয়।

প্রকারভেদ:

  • ন্যারো ব্যান্ড (Narrow Band): 
  • ভয়েস ব্যান্ড (Voice Band): 
  • ব্রড ব্যান্ড (Broad Band): 
  1. ন্যারো ব্যান্ড (Narrow Band): যে চ্যানেলে ৪৫-৩০০ bps গতিতে ডেটা পাঠানো হয়, তাকে ন্যারো ব্যান্ড বলা হয়। ন্যারো ব্যান্ডকে তুমি তোমার বাসার পাশের গলির সাথে তুলনা করতে পারো। খুব অল্প কিছু যানবাহন যেমন ছোটো গলিতে আস্তে চলাচল করে তেমনি ন্যারো ব্যান্ডে খুব অল্প গতিতে ডেটা ট্রান্সফার হয়ে থাকে। টেলিগ্রাফির ক্ষেত্রে এই ব্যান্ডকে ব্যবহার করা হয় ।
  1. ভয়েস ব্যান্ড (Voice Band): যে মাধ্যমে 300-9600 bps গতিতে ডেটা আদান-প্রদান করা হয়, তাকে ভয়েস ব্যান্ড বলা হয়। মেইন রোডে যেমন তুলনামুলক বেশি স্পীডে অধিক সংখ্যক যানবাহন চলাচল করতে পারে তেমনি ভয়েস ব্র্যান্ডের গতি ন্যারো ব্যান্ড থেকে বেশি এবং একসাথে অধিক পরিমাণ ডেটা চলাচল করতে পারে। এটি সাধারণত ল্যান্ড টেলিফোনে বেশি ব্যবহার করা হয়। তবে কম্পিউটার ডেটা কমিউনিকেশনে কম্পিউটার থেকে। প্রিন্টারে ডেটা স্থানান্তর কিংবা কার্ড রিডার থেকে কম্পিউটারে ডেটার স্থানান্তরের ক্ষেত্রে এই ব্যান্ডউইডথ ব্যবহার করা হয়।
  1. ব্রড ব্যান্ড (Broad Band): যে মাধ্যমে ডেটা আদান-প্রদানের গতি 1 Mega bit per second বা Mbps থেকে বেশি হয় তাকে ব্রড ব্যান্ড বলা হয়। হাইওয়েতে যেমন সবচেয়ে বেশি পরিমানে যানবাহন অনেক দ্রুত গতিতে চলাচল করতে পারে, তেমনি ব্রডব্যান্ডে সব থেকে বেশি পরিমানে দ্রুত গতিতে ডেটা পাঠানো যায়। ব্রড ব্যান্ড সাধারণত কো-এক্সিয়াল ক্যাবল ও অপটিক্যাল ফাইবার ক্যাবলে ডেটা স্থানান্তরে ব্যবহার করা হয়। তাছাড়াও WiMAX, স্যাটেলাইট কমিউনিকেশন এবং মাইক্রোওয়েভ কমিউনিকেশনের ক্ষেত্রেও এই ব্যান্ড ব্যবহার করা হয়।

আজ তাহলে তোমরা ব্যান্ড উইথ সম্পর্কে জানতে পেরেছো।

শেয়ার:

Similar Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

eleven + eighteen =